আপনি কি জানেন? এমন কিছু খাবার রয়েছে যেগুলো দৈনিক গ্রহণ করলে হজমশক্তি বাড়ে, হৃদরোগ প্রতিরোধ হয়, শরীরের ওজন নিয়ন্ত্রণ থাকে, মূত্রতন্ত্রের কার্যকারিতা অক্ষুণ্ন থাকে। যেমন­ রসুন, পাসলি (খাদ্যে ব্যবহৃত সুগন্ধিযুক্ত পাতা) কিংবা ক্র্যানবেরি আপনার শরীরে প্রয়োজনীয় এমন কিছু পুষ্টি উপাদানের জোগান দেয় যা শরীরের চালিকাশক্তি হিসেবে কাজ করে।

রসুন
রসুনকে বলা হয় প্রাকৃতিক এন্টিবায়োটিক। অন্যান্য এন্টিবায়োটিকের মতো রসুনও শরীরে অনুপ্রবেশকারী বেশ কিছু জীবাণুর আক্রমণ প্রতিহত করতে পারে। রসুনের মধ্যে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে পটাসিয়াম, জিঙ্ক সেলেনিয়াম, ভিটামিন-এ এবং ভিটামিন-সি। রসুন সাধারণভাবে হজম ক্ষমতা বৃদ্ধি, ইনফেকশন প্রতিরোধ, রক্তপ্রবাহ বৃদ্ধি এবং হৃদরোগ প্রতিরোধে ভূমিকা রাখে।

পার্সলি
বিভিন্ন রান্নায় সুগন্ধি ছড়ানোর কাজে এটি ব্যবহৃত হয়। এটি একধরনের পাতা। এই পাতায় রয়েছে উল্লেখযোগ্য পরিমাণ ক্যালসিয়াম, আয়রন, রিবোফ্লাবিন, পটাসিয়াম, থায়ামিন, ভিটামিন-এ এবং সি। স্বল্প পরিমাণে নিয়াসিনও রয়েছে এই পাতাটিতে। বিশিষ্ট হজমকারক এবং শ্বাস পরিষ্কারক হিসেবে পাসলি সমধিক পরিচিত। এতে রয়েছে উচ্চমাত্রার গন্ধ বিশোষক এবং জারক ক্লোরোফিল। আসলে পাসলি ভেষজ প্রক্রিয়ায় ওজন হ্রাসকারী ওষুধের একটি উপাদান হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে দীর্ঘ দিন থেকে। তবে আধুনিক গবেষণায় দেখা গেছে, এটি কিডনি, লিভার, থাইরয়েড এবং অন্যান্য গ্রন্থির স্বাভাবিক কার্যক্রম পরিচালনায় সহায়তা করে।

ক্র্যানবেরি
মূত্রতন্ত্রের ইনফেকশন প্রতিরোধে ক্র্যানবেরি শত শত বছর ধরে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। কারণ এর মধ্যে কিছু উপাদান রয়েছে যা প্রস্রাবে অবস্থিত ব্যাকটেরিয়ার বংশ বৃদ্ধিতে বাধা দেয়। ক্র্যানবেরির জুসের মধ্যে এমন কিছু উপাদানের সন্ধান মিলেছে যেগুলো মূত্রতন্ত্রের বিভিন্ন নালীর অভ্যন্তরীণ পৃষ্ঠের কোষের সংস্পর্শে আসা ব্যাকটেরিয়ার জন্য ক্ষতিকর হয়ে দাঁড়ায়।
 
**************************
ডা. কাজী মাহবুবা আখতার
দৈনিক নয়া দিগন্ত, ১৯ অক্টোবর ২০০৮