হার্ট এ্যাটাক নিয়ে উদ্বিগ্ন নন এমন চল্লিশোর্ধ ব্যক্তি পাওয়া যাবে না। হার্ট এ্যাটাকের প্রধান কারণসমূহের মধ্যে রয়েছে হার্ট রক্তনালীতে চর্বি বা কোলষ্টেরল জমে ব্লক তৈরি হওয়া, রক্তনালী সরু হয়ে হার্টে রক্ত চলাচলে বাধার সৃষ্টি হওয়া, অতিরিক্ত মানসিক চাপ ইত্যাদি। কিন্তু অনেক ক্ষেত্রে হার্ট এ্যাটাকের কোন কারণ সনাক্ত করা যায় না। এমনও দেখা যায় প্রত্যহ নিয়মমাফিক ব্যায়াম করেন, চর্বি জাতীয় খাবার কম খান, লবণ খান না, প্রচুর শাক-সবজি খান, উচ্চরক্তচাপ, ডায়াবেটিস নেই এবং মানসিকভাবে দুশ্চিন্তাগ্রস্ত নন, তবুও হার্ট এ্যাটাক হয়। এ ধরনের হার্ট এ্যাটাক সাধারণতঃ পূর্ব উপসর্গ ছাড়াই ঘটে। তাই নিয়মিত বছরে অন্ততঃ একবার হার্টের রুটিন চেকআপ করানো উচিত। আজকে যে বিষয়টি আলোচনায় আনতে চাই তা হচ্ছে মানসিক চাপ থেকে হার্ট এ্যাটাক। এ ধরনের হার্ট এ্যাটাকের ক্ষেত্রে কোন পূর্ব উপসর্গ থাকে না। মাত্রাতিরিক্ত মানসিক চাপ থেকে হঠাৎ হার্ট এ্যাটাক হতে পারে। মানসিক চাপ থেকে কেন হার্ট এ্যাটাক হয় এর কোন বিজ্ঞানভিত্তিক যুক্তি না থাকলেও ধারণা করা হয় তীব্র মানসিক চাপ থেকে হার্টের রক্তনালীর সংকোচন বা স্পাজম ঘটে। ফলে হার্ট এ্যাটাকের মত বিপজ্জনক অবস্থার সৃষ্টি হতে পারে। তাই তীব্র মানসিক চাপ (Stress) কমানোর চেষ্টা করা উচিত।

**************************
ডাঃ মোড়ল নজরুল ইসলাম
দৈনিক ইত্তেফাক, ১৫ নভেম্বর ২০০৮।