সমস্যাঃ
আমার বয়স ২৪ বছর। ওজন ৬০ কেজি। আমার দাঁতের মাঢ়িগুলো একটু ফোলা ফোলা হয়ে আছে। মনে হয়, যেন মাঢ়ি আলগা হয়ে যাচ্ছে। কোনো শক্ত খাবার খেতে গেলে মনে হয়, এই বুঝি দাঁত ভেঙে গেল। আমার মাঢ়ির বেশ কয়েকটি দাঁতে ডেন্টাল ক্যারিজ রয়েছে। দুই বেলা নিয়মিত দাঁত ব্রাশ করার পরও মুখে দুর্গন্ধ হয়, যা ভীষণ বিব্রতকর। এ ছাড়া দাঁতের হলদেটে ভাবও রয়েছে। গত বছর স্কেলিং করিয়েছিলাম। চিকিৎসক আমাকে কিছু ওষুধ দেন এবং মাউথ রিনস বা ওয়াশ দিয়ে কুলি করতে বলেন। মাউথ রিনস নিয়মিত ব্যবহার করলেও ওষুধ কয়েক দিন সেবন করে আর সেবন করিনি। এ ছাড়া ইদানীং মাঢ়ি দিয়ে রক্ত আসে। দাঁতে ময়লা জমে দ্রুত। তাই চিকন সুই বা কাঠি দিয়ে ময়লাগুলো পরিষ্কার করি। এ সমস্যাগুলো অনেক দিন থেকেই চলে আসছে। পরামর্শ দিলে খুশি হব।
তরুণ দত্ত
ধনবাড়ী, টাঙ্গাইল।

পরামর্শঃ 
অনেক কারণেই দাঁতের মাঢ়িতে সমস্যা হতে পারে। সাধারণভাবে দাঁতে খাদ্যকণা লেগে থাকলে পরিষ্কার সুতা বা ডেন্টাল ফ্লস দিয়ে পরিষ্কার করা যায়। সুই বা কাঠি দিয়ে কখনোই নয়। তবে দাঁতের গোড়ায় পাথর জমলে সেটা স্কেলিংয়ের মাধ্যমেই পরিষ্কার করতে হয়। এটি করলে মাঢ়ি শক্ত হয়, দাঁত দিয়ে রক্ত পড়াও বন্ধ হয়। দাঁতের দুর্গন্ধ দূর করতে সহায়ক হয়।

তাই বছরে অন্তত দুবার বিশেষজ্ঞ দন্তচিকিৎসকের সঙ্গে দেখা করে দাঁত পরীক্ষা করে স্কেলিং করানো ভালো। আপনার মাঢ়ি থেকে নির্যাস (গাম সোয়াব) ও রক্ত পরীক্ষা করে চিঠিতে উল্লিখিত অন্য সমস্যাটির ব্যাপারে পুরোপুরি নিশ্চিত হওয়া যাবে। আপনার কিছু অ্যান্টিবায়োটিক সেবন করতে হতে পারে। এ ছাড়া ফোলা না কমলে আপনার মাঢ়ির চিকিৎসার জন্য সম্ভবত শল্যচিকিৎসার (জিনজিভেকটমি) প্রয়োজন হবে। দাঁতে সাধারণ প্রদাহ (ডেন্টাল ক্যারিজ) হয়ে থাকলে ফিলিং চিকিৎসাই যথেষ্ট। আপনি দাঁত মাজার জন্য ভালো নরম ব্রাশ ও টুথপেস্ট ব্যবহার করুন। ভিটামিন-সি যুক্ত খাবার, ফলমূল বেশি করে খান।

**************************
পরামর্শ দিয়েছেন
অধ্যাপক ডা: মো: আশরাফ হোসেন
কনজারভেটিভ ডেন্টিস্ট্রি বিভাগ
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় ও প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক, পাইওনিয়ার ডেন্টাল কলেজ, ঢাকা
প্রথম আলো, ১৯ নভেম্বর ২০০৮।