দাঁতের ব্লিচ কোথায়/ কাদের করতে হয়?
১। বিবর্ণ দাঁত।
২। দাঁতে পানের দাগ থাকলে (দীর্ঘদিন যাবৎ পান খাবার ফলে সৃষ্ট বিবর্ণ দাঁত)।
৩। মৃত দাঁত।
৪। বিবর্ণ দাঁত যাতে রুট ক্যানেল করা হয়েছে।
৫। ফ্লুরেসিসের ফলে দাঁত হলদে হলে।
৬। বয়স বাড়ার সাথে সাথে দাঁতের রং ধীরে ধীরে গাঢ় হলুদ থেকে কিছুটা বাদামী রূপ নিতে থাকে। তখন সৌন্দর্য রক্ষায় দাঁতে ব্লিচ করা যায়।
৭। আঘাতের ফলে বিবর্ণ হয়ে যাওয়া দাঁত।
৮। অল্প বয়সের তরুণ-তরুণরা হলদে দাঁতকে অধিক সাদা ও চকচকে করতে ব্লিচ করতে পারেন।
৯। স্বাভাবিকের তুলনায় দাঁত বেশী লালচে বা হলদেটে দেখালে দাঁতে ব্লিচ করা যেতে পারে।

দাঁতে ব্লিচ করা বর্তমানে তরুণ প্রজন্মে এনেছে এক নতুন আনন্দধারা। এখন সবাই নিজেকে সুন্দর রাখতে খুব ব্যস্ত। দাঁত বাহ্যিক সৌন্দর্য বিকাশে অধিকতর গুরুত্বপূর্ণ । আসুন আমরা দাঁত থাকতে দাঁতকে তার উপযুক্ত মর্যাদা দেই। স্নিগ্ধ হাসিতে ভরিয়ে দেই সকলের মন।

**************************
ডাঃ নাহিদ ফারজানা
চেম্বারঃ নাহিদ ডেন্টাল কেয়ার, ২১৬/বি, এলিফ্যান্ট রোড
দৈনিক ইত্তেফাক. ২৮ মার্চ ২০০৯।