কিডনি সমস্যা
পরামর্শ দিয়েছেন
কাজী রফিকুলআবেদীন
সহকারী অধ্যাপক (ইউরোলজি), ইউরোলজিস্ট অ্যান্ড এন্ড্রোলজিস্ট
ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব কিডনি ডিজিজেস অ্যান্ড ইউরোলজি, ঢাকা।

সমস্যা: আমার বয়স ১৯ বছর, উচ্চতা ৫'-৩'' , ওজন ৩৮ কেজি। তিন বছর যাবৎ আমার ঘন ঘন প্রস্রাব হয়। আধা ঘণ্টা থেকে এক ঘণ্টা অন্তর প্রস্রাব হয়। সন্ধ্যার পর ১০ থেকে ১৫ মিনিট অন্তর এবং রাতে ঘুমন্ত অবস্থায় ছয় ঘণ্টা পরে হয়। মাঝেমধ্যে ডান পাশের কোমরে ব্যথা হয়। ব্যথাটা বেশিক্ষণ থাকে না। সকালে ঘুম থেকে ওঠার পর প্রস্রাব হলুদ ও ঘোলাটে হয়। সারা দিন স্বাভাবিক প্রস্রাব হয়। আমার ডায়াবেটিস নেই। অনেক ডাক্তার দেখিয়ে ওষুধ খেয়েছি। কিছুদিন ভালো থাকার পর আবার আগের অবস্থা ফিরে আসে। আমি এ রোগ নিয়ে খুবই চিন্তিত।
মো. দিদার হোসেন
আগ্রাবাদ, চট্টগ্রাম।

পরামর্শ: প্রাথমিকভাবে আপনাকে আপনার প্রস্রাব, কিডনি ও মূত্রতন্ত্রের আল্ট্রাসনোগ্রাফিসহ কিছু পরীক্ষা করা প্রয়োজন। আপনার প্রস্রাবের প্রদাহ থাকতে পারে। এ ছাড়া প্রস্রাবের থলি থেকে প্রস্রাব বহির্গমনের পথেও বাধা থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। একজন ইউরোলজিস্টের কাছে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে যথাযথ ব্যবস্থা নিলে আপনি উপকৃত হবেন।

সমস্যা: আমার বয়স ২৬ বছর। ওজন ৪৬ কেজি। আমার ঘন ঘন প্রস্রাবের বেগ হয়। বাথরুমে প্রায় এক মিনিট বসে থাকার পর প্রস্রাব বের হয় এবং তা চিকন নালি হয়ে বের হয়। তাও একটু বের হয়ে বন্ধ হওয়ার পর আবার বের হয়—এভাবে চাপ দিয়ে পুরোপুরি শেষ করতে হয়। যদি কোনো কারণে প্রস্রাব ধরে রাখি বা প্রস্রাব করতে একটু দেরি হয়, তাহলে মনে হয়, আমার বুক বন্ধ হয়ে আসছে এবং গলা খুব শুকিয়ে যায়। যতক্ষণ পর্যন্ত না প্রস্রাব করি, ততক্ষণ পর্যন্ত অস্বস্তিতে ভুগি।
প্রস্রাব করার পরপরই আরাম বোধ করি এবং গলা শুকানোর কারণে এক চুমুক পানি খাই, যদিও আমি সারা দিন পানি কম খাই। উল্লেখ্য, আমার আইবিএস আছে, কিন্তু ডায়াবেটিস নেই।
উপরিউক্ত বিষয়ে ভারতের অ্যাপোলো হাসপাতালের চিকিৎসককে দেখিয়েছিলাম। কাগজপত্র সঙ্গে পাঠালাম। আশা করি, সঠিক সমাধান দিয়ে আমাকে উপকৃত করবেন।
মাসুদ পারভেজ
পাথরঘাটা, চট্টগ্রাম।

পরামর্শ: আপনার প্রশ্ন ও পরীক্ষার রিপোর্ট দেখে মনে হয়, আপনি প্রস্রাবের থলির মুখের প্রতিবন্ধকতা রোগে ভুগছেন। আপনাকে আগে যে চিকিৎসকেরা ওষুধ দিয়েছেন, এ ধরনের ওষুধই আপনার জন্য প্রয়োজন। এখন একজন ইউরোলজিস্টের পরামর্শ নিয়ে ওষুধের মাত্রা নির্ধারণ করে নিয়মিত ওষুধ ব্যবহারের সঙ্গে সঙ্গে পানি পানের পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করলে আপনি ভালো থাকবেন।

**************************
দৈনিক প্রথম আলো, ১০ র্মাচ ২০১০।