ঢাকার অদুরে সাভারের চাকুলিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে গত ১৪ ডিসেম্বর ‘বিশ্ব কিডনি দিবস-০৮’ উপলক্ষে হয়ে গেল কিডনি ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে দিনব্যাপি ‘ফ্রি হেলথ ক্যাম্প’। হেলথ ক্যাম্পে ৮০ বছরের বৃদ্ধা রহিমন এসেছে দীর্ঘ ৩ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে। এ বয়সে তার শরীর ব্যাথা, অ্যালার্জি, গ্যাষ্ট্রিকসহ নানা সমস্যা। বিশিষ্ঠ কিডনি রোগ বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক হারুন আর রশিদ তাকে দেখে প্রয়োজনীয় ঔষধপত্র দিলেন। রক্ত ও প্রস্রাব পরীক্ষার জন্য নমুনাও রেখে দিলেন। আগামী শুক্রবার এখান থেকে এসে রিপোর্ট সহকারে ব্যবস্হাপত্র ও আরও প্রয়োজনীয় ঔধধ দেওয়া হবে বিনামুল্যে। স্বামীহীন বৃদ্ধার সংসারে ছেলের-মেয়ে নাতী/নাতনী থাকলেও এ চিকিৎসাসেবা পেয়ে সে বেজায় খুশি, চোখে মুখে তার আত্বতৃপ্তির হাসি। দীর্ঘ তিন কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে আসার কষ্ঠ যেন সফল হয়েছে।
ঠিক রহিমন বেওয়া নয়-এমন শত শত নারী পুরুষ এসেছে সাভারের চাকুলিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত ফ্রি হেলথ ক্যাম্প-এ। ঢাকা থেকে এসেছেন বাংলাদেশ রেনাল এসোসিয়েশন ও কিডনি ফাউন্ডেশনের সভাপতি অধ্যাপক হারুন আর রশিদ, বাংলাদেশ রেনাল এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ডা. মোঃ ফিরোজ খান, কিডনি ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মুহিবুর রহমান, কিডনি ফাউন্ডেশনের কোষাধ্যক্ষ ডা. শহিদুল ইসলাম সেলিমসহ একদল ডাক্তার নার্সের সমন্বয়ে প্রশিক্ষিত মেডিকেল টিম। আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের পরই রোগী দেখতে ব্যাস্ত হয়ে পড়লেন আগত বিশেষজ্ঞ ডাক্তাররা। শিশু থেকে বৃদ্ধা, যুবা নারী-পুরুষ সবাই লাইন ধরে চিকিৎসা সেবা নিচ্ছে। বেড়িয়ে আসছে বিনামুল্যে পাওয়া ব্যবস্হাপত্র ও প্রয়োজনীয় ঔষধসহ।
প্রফেসর হারুন আর রশিত জানালেন-সাভারের চাকুলিয়ায় প্রতি শুক্রবার ঢাকা থেকে আগত একদল ডাক্তার ফ্রি চিকিৎসা সেবা দিয়ে থাকে বছর ব্যাপি। কিন্তু বিশ্ব কিডনি দিবস উপলক্ষে এবার তারা ব্যাপকভাবে সেবা প্রদানের জন্য বিশেষজ্ঞ ডাক্তারদের নিয়ে দিনব্যাপি এ হেলথ ক্যাম্পের আয়োজন করেছে। এর মাধ্যমে একটা জরীপও করা হবে বলে তিনি জানালেন। কিডনি ফাউন্ডেশনের ব্যবস্হাপনা পরিচালক টিনি ফেরদৌস রসিদ জানালেন, কিডনি ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে দেশের অন্যান্য স্হানেও ‘ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প’ করে কিডনি রোগী নির্নয় ও সচেতনা তৈরিতে শীর্ঘই আরো ব্যাপক উদ্যোগ গ্রহন করা হচ্ছে।

**************************
আমার স্বাস্হ্য ডেস্ক
আমার দেশ, ১৮ মার্চ ২০০৮