তকের যত্ন নিয়ে মহিলাদের দুঃশ্চিন্তার অন্ত নেই। সবাই চান লাবণ্যময় মসৃণ তক। বিশেষ করে মুখের ত্বকের ব্যাপারে। নো কম্প্রমাইজ। অনেকে মুখের ব্রণ নিয়েও থাকেন উদ্বিগ্ন। এখন বাংলাদেশেই ব্রণের আধুনিক চিকিৎসা হচ্ছে। সাধারণতঃ তিন ধরনের ব্রণ রয়েছে। মাইল্ড, মডারেট ও সিভিয়ার অর্থøাৎ মৃদু, মাধ্যম মাত্রার ও তীব্র ধরনের ব্রণ হতে পারে। ব্রণের চিকিৎসার বিভিন্ন পদ্ধতি রয়েছে। মৃদু ধরণের ব্রণের ক্ষেত্রে শুধুমাত্র মুখে ওষুধ ব্যবহার করলেই চলে। মধ্যম ধরনের ব্রণের ক্ষেত্রে মুখে ওষুধ ব্যবহার এবং উপযুক্ত এন্টিবায়োটিক ব্যবহার করলেই চলে। তবে তীব্র ধরনের ব্রণের (Nodulocystic acne) ক্ষেত্রে সনাতনী চিকিৎসা যেমনঃ টপিক্যাল ক্রীম, মুখে এন্টিবায়োটিকসহ অন্যান্য ওষুধ ব্যবহার করা যায়। তবে অপ্রচলিত ওষুধের মধ্যে রয়েছে আইসোটেরিটিনয়েন এবং অন্যান্য ওষুধ।

তবে মুখের ব্রণ কখনও নিজের ইচ্ছামত চিকিৎসা করা ঠিক নয়। সঠিক প্রটোকল অনুযায়ী চিকিৎসা না দিলে ব্রণ বা একনি আপর হতে পারে। আমাদের দেশে বেশীরভাগ ক্ষেত্রে এক মাসের চিকিৎসায় একনি ভালো হলে ওষুধ বন্ধ করে দেয়া হয়। অনেক ক্ষেত্রে একনির ধরন অনুযায়ী ওষুধের মাত্রা নির্ধারণ করা হয় না। তাই একনি বা ব্রণ সম্পূর্ণ নিরাময় করতে হলে অবশ্যই উপযুক্ত-মাত্রার ওষুধ চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী ব্যবহার করতে হবে।

**********************
ডাঃ মোড়ল নজরুল ইসলাম
চুলপড়া, যৌন সমস্যা ও চর্মরোগ বিশেষজ্ঞ
এবং লেজার এন্ড কসমেটিক্স সার্জন
চেম্বারঃ লেজার স্কিন সেন্টার
বাড়ী নং-২২/এ, রোড-২, ধানমন্ডি, ঢাকা।

দৈনিক ইত্তেফাক, ০৫ এপ্রিল ২০০৮1