ক’দিন যাবৎ লাবনী কলেজে যাচ্ছে না। তার বান্ধবীরা বাসায় ফোন করে জানতে পারল তার দাঁত ব্যাথা হচ্ছে এবং মুখ ফুলে গিয়ে খাওয়া-দাওয়া প্রায় বন্ধ হয়ে গেছে। মুখ খুলতে পারছে না।

আমাদের দেশে সাধারণতঃ ১৮-২৫ বছরের যুবক-যুবতীরা এ জাতীয় সমস্যার সম্মুখীন হয়ে থাকেন। আক্কেল দাঁতের এই সমস্যাকে পেরিকরোনাইটিস বলা হয়। সাধারণতঃ দাঁত গজানোর সময় বা আংশিক গজানো অবস্থায় দাঁতের উপরস্থ বা পার্শ্বস্থ টিস্যুর সংক্রমিত অংশ পেরিকরোনাইটস নামে পরিচিত।

এ রোগের লক্ষণঃ

১• আপনার বয়স যদি হয় ১৮-৩০ বছর।

২• কয়েকদিন যাবৎ নিচের চোয়ালের সর্বশেষ প্রান্তে চাপা চাপা ব্যথা অনুভব করছেন।

৩• খাবার সময় বা দাঁত ব্রাশ করার সময় ঐ স্থানে ব্যথা অনুভব হচ্ছে।

৪• মুখে দুর্গন্ধ হচ্ছে।

৫• ধীরে ধীরে মুখ ফুলে যাচ্ছে এবং সামান্য চাপ লাগলে পুঁজ বেরুচ্ছে।

৬• হা করতে কষ্ট হচ্ছে, কোন কিছু চিবিয়ে খেতে পারছেন না। শরীরের তাপমাত্রা বৃদ্ধি পাচ্ছে, দুর্বল অনুভব করছেন।

চিকিৎসাঃ এক্ষেত্রে ঐ দাঁতের এক্স-রে করতে হবে। এতে যদি দেখা যায় দাঁতের গতি ভাল তাহলে দাঁতের উপরস্থ অপারকুলাম টিস্যুগুলো ছোট একটি অপারেশনের মাধ্যমে অপসারণ করলে দাঁতটি স্বাভাবিক গতিতে গজাতে পারবে। পেরিকরোনাইটস দাঁতের বৃদ্ধির সময় হলে তাই এর জটিলতা এড়াতে সঠিক সময়ে সঠিক সিদ্ধান্ত নেয়া একে অবহেলা করবেন না। তবে অব্যশই অভিজ্ঞ ডেন্টাল সার্জনের সহায়তায় চিকিৎসা করাই উত্তম। বছরে অন্ততঃ দু’বার আপনার ডেন্টাল সার্জনের পরামর্শ নিন।

**************************
ডাঃ নাহিদ ফারজানা
সিনিয়র লেকচালার, সিটি ডেন্টাল কলেজ এন্ড হস্‌পিটাল, চীফ কনসালটেন্ট, নাহিদ ডেন্টাল কেয়ার ২১৬/বি, এলিফ্যান্ট রোড, ঢাকা-১২০৫।
দৈনিক ইত্তেফাক, ২৬ এপ্রিল ২০০৮