মোবাইল ফোন বর্তমানে আমাদের জীবনের অবিচ্ছেদ্য অংশ হয়ে গেছে। এটি ছাড়া অনেকেই নিজেকে বিচ্ছিন্ন দ্বীপের বাসিন্দা মনে করেন। কিন্তু এর তরঙ্গ প্রবাহ স্বাস্থ্যের জন্যে কতটা হুমকি তা এখনো বিতর্কিত বিষয়।

হল্যান্ডের একদল গবেষক দাবি করেছেন হাসপাতাল বেড বা গুরুত্বপূর্ণ মেডিক্যাল সরঞ্জামাদির পাশে মোবাইল ফোন ব্যবহার মারাত্মক ক্ষতিকর এবং এটি পেসমেকারের কার্যকারিতায় বাধা দিতে পারে ও ভেন্টিলেটর বন্ধ করে দিতে পারে।

ইউনিভার্সিটি অব আমস্টার্ডাম-এর ঐ গবেষকরা মোবাইল ফোনের দ্বারা সৃষ্ট ইলেক্ট্রোম্যাগনেটিক ইন্টারফেস-এর অন্তত ৫০টি দৃষ্টান্ত দেখতে পেয়েছেন যার ৭৫ শতাংশই তারা ক্ষতিকর হিসেবে শ্রেণীভুক্ত করেছেন।

বায়োমেড সেন্ট্রাল-এর অনলাইন বা ইন্টারনেট সাময়িকী ‘ক্রিটিক্যাল কেয়ার’ এর গবেষকরা হাসপাতালে আগতদের রোগীর শয্যা ও মেডিক্যাল সরঞ্জামাদির কাছাকাছি মোবাইল ফোন না নেয়ার আহবান জানান। তারা বলেন, বেতার তরঙ্গের ইলেক্ট্রোম্যাগনেটিক ইন্টারফেস মেডিক্যাল সরঞ্জামাদির ক্ষতি করতে পারে যখন মোবাইল ফোন এগুলোর ৩ সেন্টিমিটার কাছে নেয়া হয়।

গবেষকরা ৬১টি মেডিক্যাল সরঞ্জামাদির ওপর পরীক্ষা করে দেখেন বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই জিপিআরএস সিগনালই (যা মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীকে ইন্টারনেট সংযোগ দেয়) উল্লেখিত ক্ষতির জন্য দায়ী।

ওয়েবসাইট অবলম্বনে

**************************
তাহ্‌মিনা হক জয়া, বাংলাদেশ মেডিক্যাল কলেজ।
দৈনিক ইত্তেফাক, ০৩ মে ২০০৮