ছোলা ও বাদামের খোসা ছাড়াতে ছাড়াতে সিনেমা দেখা বা আড্ডা দেওয়া হামেশাই ঘটে থাকে| কিন্তু আপনি কি জানেন, এই বাদামের পুষ্টিমূল্য কতটুকু? বাদামের জৈবমূল্য অনেক বেশি| প্রতি ১০০ গ্রাম কাঁচা বাদামে কার্বহাইড্রেট রয়েছে প্রায় ৬০ গ্রাম| প্রোটিন রয়েছে ২৫·৩ গ্রাম, খাদ্যশক্তি ৫৬৬ কিলোক্যালোরি, ক্যালসিয়াম ৯০ মিলিগ্রাম, আয়রন ৩৫০ মিলিগ্রাম, ক্যারোটিন ৩৭ মাইক্রোগ্রাম| ভিটামিন বি১ রয়েছে ০·৯০ মিলিগ্রাম এবং ভিটামিন বি২ ০·১৩ মিলিগ্রাম| বাদামে ভিটামিন ‘সি’ নেই|

বাদাম ভেজে নিলে এর ক্যারোটিনের মান কমে যায়| বাকি সব উপাদান প্রায় সমানই থাকে| অনেক সময় রান্নার সঠিক প্রণালী না জানা থাকলে খাদ্যের পুষ্টি-উপাদানের অপচয় হয়| এ ধারণার ওপর ভিত্তি করে বলা যায়, বাদাম রান্না করে খাওয়া থেকে বরং ভেজে খাওয়াই বেশি ভালো এবং সুস্বাদুও বটে| বাদামের কার্বোহাইড্রেট দেহে প্রয়োজনীয় তাপশক্তি উৎপন্ন করে এবং বাকিটা গ্লাইকোজেনরূপে শরীরে জমা থাকে| কাজেই যাঁরা ওজনাধিক্য ও ডায়াবেটিসে ভুগছেন, তাঁদের জন্য বাদাম নিয়ন্ত্রণাধীন খাদ্য|

প্রতি ১০০ গ্রাম কাঁচা ছোলায় আপনি পাবেন প্রোটিন ২২·৫ গ্রাম, খাদ্যশক্তি ৩৬৯ কিলোক্যালোরি ও ক্যালসিয়াম ৫৮ মিলিগ্রাম, আয়রন ৯·৫ মিলিগ্রাম, ক্যারোটিন ১১৩ মাইক্রোগ্রাম| ‘বি’বর্গীয় ভিটামিনের মধ্যে ভিটামিন বি১ রয়েছে ০·২০| বি২ এবং ‘সি’ অনুপস্থিত|

প্রতি ১০০ গ্রাম মটরে প্রোটিন রয়েছে ১৯·৯ গ্রাম, খাদ্যশক্তি ৩৩০ কিলোক্যালোরি, ক্যালসিয়াম ৭৫ মিলিগ্রাম, আয়রন ৫·১ মিলিগ্রাম ও ক্যারোটিন ৩৯ মাইক্রোগ্রাম| ‘বি’বর্গীয় ভিটামিন আছে খুবই অল্প| ভেজে খেলে মটর বা ছোলার পুষ্টিমানে তেমন তারতম্য ঘটে না|

******************************
লেখকঃ সাদিয়া আহমেদ।
উৎসঃ দৈনিক প্রথম আলো, ২৪ অক্টোবর ২০০৭