স্বাস্থ্যকথা

(Page 1 of 6)   
« Prev
  
1
  2  3  4  5  Next »
দীর্ঘস্থায়ী কিডনি রোগ কি:কিডনি যখন নিজস্ব কোন রোগে আক্রান্ত হয় অথবা অন্য কোন রোগে কিডনি আক্রান্ত হয়, যার ফলে কিডনির কার্যকারিতা ৩ মাস বা ততোধিক সময় পর্যন্ত লোপ পেয়ে থাকে তখন তাকে দীর্ঘস্থায়ী কিডনি রোগ বলা হয়। তবে বিশেষ ক্ষেত্রে যদি কিডনি রোগ ছাড়াও কিডনির কার্যকারিতা লোপ পায় তাহলেও তাকে দীর্ঘস্থায়ী কিডনি রোগ বলা যেতে পারে। যেমন-ক্রনিক নেফ্রাইটিস কিডনির ফিল্টারকে আক্রমণ করে ক্রমান্বয়ে কিডনির কার্যকারিতা কমিয়ে ফেলতে পারে। ফলে দীর্ঘস্থায়ী কিডনি রোগ হতে পারে। ঠিক তেমনি ডায়াবেটিস বা উচ্চ রক্তচাপ কিডনি রোগ না হওয়া সত্ত্বেও কিডনির ফিল্টার/ছাঁকনি ধ্বংস করতে পারে। আবার কারও যদি জন্মগতভাবে কিডনির কার্যকারিতা কম থাকে অথবা কিডনির আকার ছোট বা বেশী বড় থাকে তাহলেও দীর্ঘস্থায়ী কিডনি রোগ হতে পারে।
পানি খেতে হবে পরিমিত। প্রতিদিনের পস্রাবের পরিমানের ওপর নির্ভর করবে কতটুকু পানি রোগী খেতে পারবেন। ০ কিডনি রোগী মাছ, মাংস, দুধ, ডিম প্রভৃতি প্রাণীজ আমিষ সীমিত পরিমাণে খাবেন। রোগীর রক্তের ক্রিয়েটিনিন, শরীরের ওজন, ডায়ালাইসিস করেন কিনা, করলে সপ্তাহে কয়টা করেন তার ওপর নির্ভর করবে প্রতিদিন কত গ্রাম প্রোটিন খাবেন তার পরিমাণ।
নেফ্রোটিক সিনড্রম কিডনির খুব কমন একটি রোগ। এটি কিডনির অনেক গুলো উপসর্গের্র সমন্বয় । নেফ্রটিক সিনড্রম হলে কি হয়? প্রসাবে প্রচুর প্রোটিন যায়, রক্তে প্রোটিনের মাত্রা অনেক কমে যায় আর কোলেস্টেরলের মাত্রা অনেক বেড়ে যায় এবং সেই সাথে সমসত শরীরে পানি জমে ফুলে যায় ।

কথাটা সবাই জানেন। পানির মতো দাওয়াই আর নেই। পানি যত খাবেন তত ভাল। আপনার কিডনি ভাল থাকবে। মূত্রনালীতে পাথর জমবে না। রক্তও বিশুদ্ধ হবে। প্রতিদিন কমপক্ষে আট গ্লাস পানি খাবেন এই পরামর্শ হরহামেশাই দিচ্ছেন ডাক্তার, কবিরাজ কিংবা স্বাস্থ্যসচেতন মুরুব্বীরা।

নাক, কান ও গলার সমস্যা কিডনি সমস্যা
একজন মানুষের কিডনি অন্য একজন অকেজো কিডনির রোগীর দেহে সংযোজন করাকে কিডনি সংযোজন বলা হয়। কিডনি সংযোজন সাধারণত দুই ভাবে করা যায়: মৃত ব্যক্তির কিডনি নিয়ে সংযোজন এবং নিকটাত্মীয়ের যেকোনো একটি কিডনি নিয়ে সংযোজন। আমাদের দেশে বর্তমানে জীবিত নিকটাত্মীয়ের মধ্যে কিডনি সংযোজন বা লাইফ রিলেটেড কিডনি প্রতিস্থাপন নিয়মিত হচ্ছে এবং এর সাফল্যও উন্নত বিশ্বের যেকোনো দেশের সমান।
মূত্রনালির সংক্রমণ ও প্রদাহ বলতে সাধারণত মূত্রথলির ও মূত্রদ্বারের সংক্রমণকে বোঝায়, যা সময়মত চিকিত্সা না করালে মূত্রনালি বা ইউরেটার এবং বৃক্ক বা কিডনির সংক্রমণ ও প্রদাহে রূপ নিতে পারে।
  • আপনি জানেন কি, আপনার দুটো কিডনি প্রতিদিন প্রায় ১৭০ লিটার রক্ত পরিশোধিত করে আপনার শরীরকে সুস্থ রাখে? 

    দুটো কিডনিতে প্রায় ২০-২৫ লাখ ছাঁকনি রয়েছে, যা অনবরত আপনার রক্তকে পরিশোধিত করে যাচ্ছে। ....................
কিডনি রোগ অনেক ধরনের হতে পারে। কিন্তু এই কিডনি, কিডনি রোগ, এর চিকিত্সা নিয়ে অনেকেরই কিছু ভুল ধারণা রয়েছে। স্বল্প পরিসরে সেগুলো আলোকপাত করা হলো।
চলতি বছরের বিশ্ব কিডনি দিবসের স্লোগান হলো—‘প্রটেক্ট ইউর কিডনিস, কন্ট্রোল ডায়াবেটিস’ অর্থাত্ ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রেখে কিডনিকে রক্ষা করুন। মূলত ডায়াবেটিস বা বহুমূত্র রোগ থেকে কিডনি বিকল হওয়ার সম্ভাবনা বেশি বলেই ডায়াবেটিসকে নিয়ন্ত্রণে রাখার কথা এবার বেশ জোরেশোরেই বলা হচ্ছে। পৃথিবীতে কিডনি রোগ ব্যাপক বিস্তার লাভ করছে। উন্নয়নশীল বিশ্বে এর বিস্তার আরও বেশি। যুক্তরাষ্ট্রসহ উন্নত বিশ্বে এর হার শতকরা ১১ ভাগ অর্থাত্ প্রতি ৯ জনের ১ জনই কিডনি রোগী। অস্ট্রেলিয়ায় এ হার শতকরা ১৫ ভাগ। উন্নয়নশীল বিশ্বে এ হার যে আরও বেশি হতে পারে তাতে কোনো সন্দেহ নেই।
(Page 1 of 6)   
« Prev
  
1
  2  3  4  5  Next »

Categories