স্বাস্থ্যকথা

খাদ্য ও পুষ্টি

(Page 1 of 6)   
« Prev
  
1
  2  3  4  5  Next »
রুপকথার গল্প থেকে আমরা জেনেছি লবণ ছাড়া রান্না করা খাবারের কোনও স্বাদ নেই রাজার মুখে, তাই ছোট রাজকুমারীর 'লবণের মত ভালবাসাই প্রকৃত ভালাবাস'। শরীরবৃত্তিয় প্রয়োজনে পরিমিত মাত্রার খাবার লবণের যেমন দরকার তেমনি অতিরিক্ততা গুরুতর ক্ষতিরও কারণ। অধিক পরিমাণে খাবার লবণ গ্রহণ থেকে বিরত থাকলেই সুস্বাস্থ্য অর্জন করা যায়-এই প্রসঙ্গেই আজকের আলোচনা।
কমলা জনপ্রিয় এবং সহজলভ্য একটি ফল। সহজলভ্যতার কারণে এটি সারা বছরই পাওয়া যায় এবং দামেও সস্তা। তাই এটি আর এখন বিদেশী কোন ফল নয়। জনপ্রিয় এই ফলটির পুষ্টিগুণ কি আমরা সবাই কি জানি। এবারে কমলার উপকারিতা ও পুষ্টিগুণ সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক।

ভিটামিন ডি-এর গুণ

ভিটামিন ডি হাড়ের জন্য ভালো। শুধু ভালো না, বলতে হবে অত্যাবশ্যকীয়। সুস্থ দাঁতের জন্য ও দরকার ভিটামিন ডি। এটুকু আমরা সবাই জানি। তবে আমেরিকার একডেমী অফ ফ্যামিলি ফিজিশিয়ান্স সম্প্রতি জানিয়েছে নতুন এক তথ্য । ভিটামিন ডি শুধু হাড় ওদাঁতের গঠনেই কাজে লাগেনা এটি ডায়েবেটিস , হূদরোগ এবং ক্যান্সার প্রতিরোধেও সাহায্য করে। সুতরাং নিজের খাদ্য তালিকাটি আবার পরখ করে দেখুন পর্যাপ্ত ভিটামিন পাচ্ছেন তো?

**************************

ডা: সাদিয়া তাবাস্সুম

দৈনিক ইত্তেফাক, ২৬ মার্চ ২০১১

রুপকথার গল্প থেকে আমরা জেনেছি লবণ ছাড়া রান্না করা খাবারের কোনও স্বাদ নেই রাজার মুখে, তাই ছোট রাজকুমারীর 'লবণের মত ভালবাসাই প্রকৃত ভালাবাস'। শরীরবৃত্তিয় প্রয়োজনে পরিমিত মাত্রার খাবার লবণের যেমন দরকার তেমনি অতিরিক্ততা গুরুতর ক্ষতিরও কারণ। অধিক পরিমাণে খাবার লবণ গ্রহণ থেকে বিরত থাকলেই সুস্বাস্থ্য অর্জন করা যায়-এই প্রসঙ্গেই আজকের আলোচনা।
সবুজ শাকপাতা পুষ্টিগত কারণে স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী। আমাদের সারাদিন যতটুকু অাঁশ এবং বিভিন্ন ভিটামিন ও মিনারেলস্ দরকার, তার অনেকটাই সবুজ শাকপাতা থেকে পূরণ করা সম্ভব।
ডিম আমাদের একটি প্রিয় খাবার। সন্দেহাতীতভাবে ডিম একটি পুষ্টিকর খাবার। হঠাত্ অতিথি আপ্যায়নে আমাদের দেশে ডিমের কদর অনেক আগে থেকেই।

মাছ খেলে ইসকেমিক হৃদরোগের সম্ভাবনা হ্রাস পায়

নিয়মিত এবং নির্দিষ্ট পরিমাণে মাছ খেলে তাতে ইসকেমিক স্ট্রোকের সম্্‌ভাবনা কমে যায়। বিশেষ করে মাসে অন্তত দু’বার সামুদ্রিক মাছ খেলেই এই ঝুঁকি অনেকাংশে কমে আসে। শিকাগোর নর্থ ওয়েস্টার্ন ইউনিভার্সিটির কয়েকজন প্রফেসর সম্প্রতি এক গবেষণায় এটি প্রমাণ করেছেন। ইসকেমিক স্ট্রোক মূলত মি-ষ্ড়্গে রক্ত প্রবাহের পথটি ব্লক করে দিয়ে রক্ত সঞ্চালণের প্রক্রিয়াকে বাধাগ্র- করে। সামুদ্রিক মাছে থাকা কিছু খণিজ উপাদান, যা এই ব্লক তৈরি হতে দেয় না। তবে অতিরিক্ত তৈলাক্ত মাছ খেলে আবার হিতে বিপরীত হতে পারে। তাই তৈলাক্ত মাছ বিশেষ করে পাঙ্গাসের পেটি, ইলিশের পেটি এবং চিংড়ীর মগজ পরিহার করা ভালো। এছাড়া ফ্রাই করা মাছ বা মাছ ভাজা খেতে পছন্দ করেন অনেকে। ফ্রাই ফিস যথাসম্্‌ভব কম খাওয়া ভালো। কারণ তেলে ভাজার কারণে মাছে স্বাভাবিক চর্বির চেয়ে অনেক বেশী চর্বি পাওয়া যায় যা হৃদরোগের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ।

**************************
দৈনিক ইত্তেফাক, ৬ মার্চ ২০১০।

ভেষজ গুণাগুণ : নারকেল শরীরের জন্য উপকারী

শুধু রান্নার স্বাদ বাড়ায় না, শরীরের জন্যও নারকেল উপকারী। — বাদাম, আখরোট এবং মিশ্রির সঙ্গে নারকেল মিশিয়ে খেলে স্মৃতিশক্তি বাড়ে। — নাক দিয়ে রক্ত পড়লে ডাবের পানি রোজ খাওয়া উচিত। এর সঙ্গে খালি পেটে নারকেল খেলেও নাক দিয়ে রক্ত পড়া বন্ধ হয়ে যায়। — নারকেলের পানি শসার রসের সঙ্গে মিশিয়ে সকাল-সন্ধ্যা নিয়মিত মুখে লাগালে ত্বক পরিষ্কার হয়। চেহারার জৌলুস বাড়ে। — রাতে খাওয়ার পরে প্রতিদিন আধাগ্লাস নারকেলের পানি পান করা উচিত। এতে ঘুম ভালো হবে। — নারকেলের মধ্যে বাদাম পেষা মিশিয়ে মাথায় লাগানো ভালো। মাথা যন্ত্রণা কমে যায়। — নারকেল তেলের মধ্যে লেবুর রস মিশিয়ে চুলে লাগালে খুশকি দূর হয়ে যায়। — গর্ভাবস্থায় প্রতিদিন ৫০ গ্রাম নারকেল খাওয়া সন্তানের পক্ষে ভালো। এতে সন্তানের গায়ের রঙ ফর্সা হয়। — পেটের কৃমি দূর করতে প্রতিদিন সকালে নাস্তার পর এক চামচ নারকেল খান। এতে পেটের কৃমি দূর হয়ে যাবে।

**************************
দৈনিক আমার দেশ, ২৩ র্মাচ ২০১০।
খাদ্য নিয়ে অনেক কথা বলছেন অনেকে। লেখালেখিও হচ্ছে প্রচুর। কারণ আজকালকার যে অসুখ-বিসুখ একে মোকাবেলার জন্য খাদ্য বিধিতে পরিবর্তন আনা জরুরী বলে মনে হচ্ছে। পরিবর্তন করে লাভ হচ্ছে। এজন্য এদিকে নজর পড়ছে চিকিৎসকদের। সম্প্রতি একটি বই বেরিয়েছে ক্যালোফনিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক মাইকেল পোলানের, ‘Food rules, an Eater’s Mannual’প্রাণরসায়নবিদ বা পুষ্টিবিদ না হলেও পোলান একটি চমৎকার বই লিখেছেন সবার জন্য। আরও দুটো ভালো বই লিখেছেন তিনি। 'Indefense of food: An eatir’s Manifestu’ Ges 'The Omnivore’s dilema. তিনটি বইই প্রকাশিত হয়েছে পেঙ্গুইন থেকে। ১৩৯ পৃষ্ঠার বই Food rules পড়ার মত বই।
(Page 1 of 6)   
« Prev
  
1
  2  3  4  5  Next »

Categories