স্বাস্থ্যকথা

নাক, কান, গলা

(Page 3 of 4)   « Prev  1  2  
3
  4  Next »
কানপাকা রোগ নিয়ে ডাক্তারের কাছে যাওয়ার পর রোগের ইতিহাস বর্ণনা করতে গিয়ে অধিকাংশ ক্ষেত্রেই কারণ হিসেবে অতীতে কোনো একসময়ে কানে পানি যাওয়াকে দায়ী বলে মনে করেন রোগীরা। অনেক রোগীই মনে করেন, কানে পানি গেলে কান পাকে। তাদের ধারণা, কোনো একসময়ে গোসল করতে গিয়ে ঢুকে যাওয়া পানিই কানপাকার পর বেরিয়ে আসতে শুরু করেছে।
আমার কানে কোনো সমস্যাই ছিল না। ২০০২ সালের মার্চ মাসে ভাইরাল জ্বর হলো হঠাৎ। পরদিন কান দুটো বন্ধ হয়ে গেল। চারদিকটা নিঃসীম আঁধারে হারিয়ে গেল যেন। অতিচেনা পৃথিবীর সব কোলাহল যেন নিশ্চুপ হয়ে গেল­ আমি কোনো শব্দই শুনছিলাম না।
ককলিয়ার ইমপ্নান্ট একটি নতুন অপারেশনঃ ইতোপূর্বে এ দেশে সরকারিভাবে স্যার সলিমুল্নাহ মেডিক্যাল কলেজ ও মিটফোর্ড হাসপাতালে ২০০৬ সালের ডিসেম্বর মাসে একটি এবং বেসরকারিভাবে দু-একটি অপারেশন হয়েছে। কিন্তু মানুষের মধ্যে এ বিষয়টি ব্যাপকভাবে সাড়া জাগাতে পারেনি। পরে বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় লেখালেখি এবং টিভিতে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে মানুষের মাঝে ব্যাপক সচেতনতা সৃষ্টি করা হয় এবং তারই ফলে এবার আমরা স্যার সলিমুল্নাহ মেডিক্যাল কলেজ ও মিটফোর্ড হাসপাতালে চারটি ককলিয়ার ইমপ্নান্ট অপারেশন
নাকের অ্যালার্জি রোগটি হলো অ্যালার্জিজনিত নাকের প্রদাহ। উপসর্গগুলো হচ্ছে অনবরত হাঁচি, নাক চুলকানো, নাক দিয়ে পানি পড়া এবং নাক বন্ধ হয়ে যাওয়া, কারো কারো চোখ দিয়ে পানি পড়া এবং চোখ লাল হয়ে যায়।
জানুয়ারি ২০০৮-এ প্রকাশিত দুটি গবেষণার ফল থেকে জানা যায়, বারবার টনসিল প্রদাহে আক্রান্ত শিশু ও বয়স্ক রোগীদের টনসিল অপারেশন করলে জীবনযাত্রার মানের যথেষ্ট উন্নতি ঘটে। একটি গবেষণায় ৯২ জন প্রায়ই টনসিল প্রদাহে আক্রান্ত শিশুর পিতা-মাতার মতামত সংগ্রহ করা হয় টনসিল অপারেশনের পুর্বে, অপারেশনের ৬ মাস ও ১ বছর পর।
নাক কান ও গলা শরীরের এই তিনটি অঞ্চলে বিভিন্ন ধরনের রোগব্যাধি হতে পারে। সাধারণ হাঁচি-সর্দি থেকে শুরু করে গলার ক্যাসার সবই রয়েছে এই তালিকায়। স্বল্পপরিসরে সেইসব রোগের কয়েকটি সম্পর্কে ধারণা দেয়া হল।
নাকের অ্যালার্জি অনেকের কাছেই একটি পরিচিত সমস্যা। ছোট-বড় সবাই এ সমস্যায় ভুগতে পারে। পরিসংখ্যানে দেখা যায়, ১০ শতাংশ মানুষ জীবনের কোনো না কোনো সময় নাকের অ্যালার্জিতে আক্রান্ত হয়ে থাকে। নাকের অ্যালার্জির এই অবস্থাকে চিকিৎসা বিজ্ঞানের ভাষায় বলা হয়ে থাকে অ্যালার্জিক রাইনাইটিস। অ্যালার্জিক রাইনাইটিস কথার অর্থ হচ্ছে অ্যালার্জিজনিত নাকের প্রদাহ।
মানবদেহের শারীরিক, মানসিক বৃদ্ধি ও বুদ্ধিভিত্তি এবং শরীরের যাবতীয় কার্যাদি সম্পাদনে বিভিন্ন গ্লান্ড জড়িত। এর মধ্যে এন্ডোক্রাইন গ্লান্ড অন্যতম। থাইরয়েড গ্লান্ড এমনই একটি এন্ডোক্রাইন গ্লান্ড।
নাক বা গলার প্রদাহের কারণে উল্লেখিত জীবাণুগুলো ইউষ্টেশিয়ান টিউবের মাধ্যমে মধ্যকর্ণের সমস্ত কাঠামোতে ছড়িয়ে পড়ে। বস্তুতপক্ষে কেমন করে মধ্যকর্ণে প্রদাহ হয় তা নিম্নে আলোচনা করা হলো-
মিমের বয়স পনর মাস। হঠাৎ করে রাতে চিৎকার শুরু করল। কিছুতেই কান্না থামানো যাচ্ছে না। মা-বাবা চেষ্টা করেও চুপ করাতে পাচ্ছেন না। অস্থির হয়ে কোলে নিয়ে পায়চারি, কোল বদল নাহ কিছুতেই থামানো যাচ্ছে না।
(Page 3 of 4)   « Prev  1  2  
3
  4  Next »

Categories