স্বাস্থ্যকথা

ডায়াবেটিস

(Page 4 of 4)   « Prev  1  2  3  
4
  
Next »
ডায়াবেটিস রোগটি প্রাচীন। খ্রিষ্টপুর্ব ৪০০ বছর আগে ভারতবর্ষের চিকিৎসকরা ‘মধুমেহ’, ‘ইক্ষুমুত্রের’ উল্লেখ করেছেন। ক্যাপাডেসিয়ার এরোটিউস এ রোগের নাম দেন ডায়াবেটিস (গ্রিক শব্দ অর্থ নির্গত হওয়া)। ১০০০ খ্রি. মুসলমান চিকিৎসা বিজ্ঞানী আবিসিনা বহুমুত্র রোগের চমৎকার বর্ণনা দিয়েছেন তার গ্রন্হে। বহুমুত্র রোগের একটি প্রধান বৈশিষ্ট্য মুত্রের মিষ্ট স্বাদ।
(ডা· মো· শফিকুল ইসলাম) ট্যারা চোখঃ দীর্ঘ সময় ধরে স্বল্প মাত্রার ডায়াবেটিসের জন্য অক্ষিপেশির অবশজনিত কারণে ট্যারা চোখ দেখা দিতে পারে। সাধারণত বয়স্ক রোগীরা এ সমস্যায় আক্রান্ত হয়ে থাকেন।
(ডা· মো· শফিকুল ইসলাম) চোখের সঙ্গে ডায়াবেটিস রোগের সম্পর্ক খুবই গভীর। বিভিন্ন পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, ডায়াবেটিসে আক্রান্ত রোগীর ক্ষেত্রে অন্ধত্বের আশঙ্কা একই বয়সের ডায়াবেটিসমুক্ত লোকের তুলনায় ২৫ গুণ বেশি। ডায়াবেটিস হলে চোখের প্রত্যঙ্গ রেটিনায় যে পরিবর্তন হয়, তা রোগীর গড় আয়ুষ্কালের সঙ্গে সরাসরি সম্পর্কিত। অর্থাৎ যিনি ডায়াবেটিস নিয়ে যত দীর্ঘ সময় বাঁচবেন, তাঁর রেটিনায় ডায়াবেটিসজনিত জটিলতার আশঙ্কা তত বেশি বাড়বে। রেটিনার এই জটিলতা বয়স্ক রোগীদের অন্ধত্বের অন্যতম প্রধান কারণ।
(ডা· আব্দুল ওয়াদুদ চৌধুরী) প্রথম আলোর দশম বর্ষে পদার্পণ উপলক্ষে স্বাস্থ্যকুশল পাতার পক্ষ থেকে অনুরোধ এসেছে কিছু লেখার জন্য| সেই অনুরোধের পরিপ্রেক্ষিতে এবারের এই কলম ধরা| একজন রোগী যখন চিকিৎসকের কাছে আসেন, তখন তাঁর প্রশ্ন থাকে মূলত তিনটি-‘ডাক্তার সাহেব, আমার কী হয়েছে?’ অর্থাৎ আমার ডায়াগনোসিস কী? দ্বিতীয়ত, ‘আমার কী হবে?’ অর্থাৎ এ রোগের আউটকাম বা প্রোগনোসিস কী? তৃতীয়ত, ‘আমাকে কী করতে হবে?’ অর্থাৎ ভালো হওয়ার জন্য আমার কী ওষুধ খেতে হবে, কী নিয়ম মেনে চলতে হবে, আর কী পরীক্ষা-নিরীক্ষা করতে হবে?
(ডা· এস এম জাকারিয়া) ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে না রাখলে গোটা শরীরের সমূহ ক্ষতি সাধিত হয়| শরীরের রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা হ্রাস পায় এবং এতে শরীরের অন্য অঙ্গ-প্রত্যঙ্গের যেমন ক্ষতি হয়, তেমনি দাঁত ও মুখগহ্বরেরও সমূহ ক্ষতি হয়|
(ডা· ফজলে রাব্বী খান) ধারণা করা হয়, বর্তমানে পৃথিবীতে ডায়াবেটিস রোগীর সংখ্যা ২৫ কোটি, ২০০৩ সালেও যা ছিল ১৯·৪ কোটি| আর এভাবে চলতে থাকলে ২০২৫ সাল নাগাদ পৃথিবীতে ডায়াবেটিস রোগীর সংখ্যা দাঁড়াবে ৩৮ কোটি|
(অধ্যাপক: ডা· মো· ফারুক) ইনসুলিন হচ্ছে ডায়াবেটিস চিকিৎসার একটি অন্যতম উপায়, যা শর্করা নিয়ন্ত্রণের ক্ষেত্রে অপরিহার্য| যেহেতু ডায়াবেটিসের কোনো নিরাময় নেই, তাই রক্তের শর্করা নিয়ন্ত্রণ করাই হলো এর চিকিৎসার একমাত্র উদ্দেশ্য|
(অধ্যাপক ডা· জাফর এ লতিফ) ডায়াবেটিসের রোগীদের স্বাভাবিক জীবনযাপনের জন্য রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা নিয়ন্ত্রণের বিকল্প নেই| আর এর জন্য প্রয়োজন শৃঙ্খলা, ব্যায়াম, খাবার ও ওজন নিয়ন্ত্রণ| যদি এসবের মাধ্যমে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব না হয়, তা হলে এর সঙ্গে ওষুধ ও ইনসুলিন গ্রহণ করতে হয়|
(অধ্যাপক শুভাগত চৌধুরী) ডায়াবেটিস এমন এক বিশ্বজোড়া সমস্যা যার রয়েছে সমাজ, মানুষ ও অর্থনীতির ওপর বিধ্বংসী প্রভাব| বর্তমানে বিশ্বজুড়ে ডায়াবেটিস রোগী সংখ্যা দাঁড়িয়েছে প্রায় ২৫০ মিলিয়ন| প্রতিবছর এতে যোগ হচ্ছে নতুন সাত মিলিয়ন রোগী|
(ডা· মো· ফরিদ উদ্দিন ) বিশ্বের কোটি কোটি মানুষ ডায়াবেটিসে ভুগছে| এর প্রকোপ দিন দিন বেড়েই চলেছে| এটি সারা জীবনের রোগ, এ রোগ কখনো একেবারে সেরে যায় না| কিন্তু চিকিৎসার মাধ্যমে এ রোগ নিয়ন্ত্রণে রাখা যায়|
(Page 4 of 4)   « Prev  1  2  3  
4
  
Next »

Categories