স্বাস্থ্যকথা

শারিরিক ও মানসিক ফিটনেস

(Page 3 of 5)   « Prev  1  2  
3
  4  5  Next »
ফ্রোজেন সোল্ডার বা কাঁধে ব্যথা একটি জটিল শারীরিক সমস্যা। ৩৫ থেকে ৭০ বয়সীদের মধ্যে এই সমস্যার বেশি দেখা যায়। পুরুষ এবং মহিলা সমানভাবে এই সমস্যায় আক্রান্ত হয়ে থাকেন।
হাসি হাঁচি-কাশির চেয়েও সংক্রামক। তবে ক্ষতি নয়, স্বাস্থ্য সুবিধা অনেক। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার দেয়া সংজ্ঞা অনুযায়ী, স্বাস্থ্য হচ্ছে সম্পূর্ণ শারীরিক, মানসিক ও সামাজিক সুস্থতা। হাসি এই সংজ্ঞার সবদিকই পূরণ করে দিতে পারে। এনে দিতে পারে শারীরিক সুস্থতা, মানসিক সুস্থতা এবং সামাজিক সুস্থতা। সুতরাং হাসি চাইই চাই।
নিদ্রাহীন রাত নিয়ে যতই কাব্য, গান আর রোমান্স থাকুক না কেন, বাস্তব ক্ষেত্রে পরপর কয়েকদিন ‘আঁখিপাতে’ ঘুম না থাকলে আতঙ্ক হয়, শারীরিক ও মানসিকভাবে বিধ্বস্ত হয়ে পড়তে হয়। নিজের ওপর আস্থাটাই হারিয়ে যায়। তখন যেকোনোভাবে একটু ঘুমই শুধু কাম্য হয়ে ওঠে।
চাপ অর্থ অনুভূতি ও শারীরিক চাপ। এ দুটি একে অপরের সঙ্গে সম্পর্কিত। একটি বাড়লে আরেকটি বাড়ে, আরেকটি কমলে অন্যটি কমে। তাই এ লেখায় মানসিক চাপের কথা বেশি উল্লেখ করা হয়েছে। চাপ নির্ভর করে মানুষের আবেগের ওপর। আবার আবেগটা নির্ভর করে মানুষ তার পরিবেশ-পরিস্থিতি কী করে সামাল দেয় এর ওপর। বিভিন্ন রকমের মানুষ বিভিন্ন রকম উপায়ে পরিবেশ-পরিস্থিতিকে চাপপূর্ণ মনে করে।
একটা ভালো খবর শুনলে যেমন মনটা আনন্দে ভরে যায়, খারাপ কোনো ঘটনা বা খবরেও তেমনি মন খারাপ হতেই পারে। আবার কখনো এই ঘটনাগুলো বাইরের কিছু না হয়ে হতে পারে কোনো ভেতরের দ্বন্দ্ব, চিন্তা-ভাবনা এসব নানা কিছু। হতেই পারে তা অন্য কোনো রোগের সাথে যুক্ত একটা অনুভূতি। এই মন খারাপের ভাবটা যখন তার মাত্রায়, সময়ের মাপে অথবা প্রকাশে আসল কারণটাকে এমনভাবে ছাড়িয়ে যায় যে একটা অবুঝ না ভালো লাগা গোটা জীবনটাকেই নিয়ন্ত্রণ করতে থাকে, আমরা তখন তাকে বিষাদ রোগ বলি।

শরীরের ওজন কেন নিয়ন্ত্রণ করবেন?

শরীরের অতিরিক্ত ওজন অর্থ হৃৎপিন্ডের অতিরিক্ত কাজের চাপ। কেননা রক্ত সঞ্চালনের ক্ষেত্র বেশি বেড়ে যাচ্ছে। এতে করে হৃদরোগ এবং ষ্ট্রোকের ঝুঁকি বৃদ্ধি পাচ্ছে। অতিরিক্ত ওজনের কারণে ৬৫ বছরের আগেই হার্ট অ্যাটাক বা ষ্ট্রোকের ঝুঁকি তিন থেকে পাঁচগুণ বৃদ্ধি পাওয়া। অতিরিক্ত ওজন আরো যে সব জটিলতার সৃষ্টি করতে পারে- -- উচ্চ রক্তচাপঃ উচ্চ রক্তচাপের ঝুঁকি ২-৬ গুণ বৃদ্ধি পায়। -- রক্তের কোলেষ্টেরলের মাত্রা বৃদ্ধিঃ অতিরিক্ত ওজনে শরীরে রক্তের কোলেষ্টেরল বৃদ্ধিতে ঝুঁকি বাড়ায়। -- টাইপ টু ডায়াবেটিসঃ শরীরের অতিরিক্ত ওজন টাইপ-টু ডায়াবেটিসের ঝুঁকি বাড়ায়। শতকরা ৮০ ভাগ ডায়াবেটিক রোগীই অতিরিক্ত ওজনের সমস্যায় ভুগে থাকেন।

**************************
 আমার দেশ, ১৮ নভেম্বর ২০০৮।
এমন হয়, গিন্নি যে জিনিসটা কিনতে বলে দিয়েছিলেন, বেমালুম ভুলে গেছেন তার নাম। সবারই হয় এ রকম মাঝেমধ্যে। মস্তিষ্ককে সবচেয়ে শক্তিশালী কম্পিউটার বলা হয়ে থাকে। তবু এর ভুল হয়। এ জন্য মস্তিষ্ককে দোষ দেওয়া কেন? সারা জীবন মস্তিষ্কে এত কিছু ভরে দিচ্ছি আমরা। এমন তো হতেই পারে। মস্তিষ্ককে চনমনে রাখতে সময় সময় প্রয়োজন হয় শাণ দেওয়া, টিউনিং করা আর-কি! আছে কিছু পরামর্শ।
পেটে বেশি চর্বি হওয়া মানেই রোগের ছড়াছড়ি। রোগের জননী ডায়াবেটিস হবেই। আরও হবে উচ্চ রক্তচাপ, বাড়বে রক্তে চর্বি। বাড়বে হৃদরোগ। তেমনি বেশি মাত্রার ওজন তৈরি করে এসব কঠিন ও জটিল রোগ। এ ছাড়া দেহের ওজন বাড়া মানেই তো একটি রোগ। তা থেকে জন্ম নেয় আরও অনেক রোগ।
আপনি কি জানেন? এমন কিছু খাবার রয়েছে যেগুলো দৈনিক গ্রহণ করলে হজমশক্তি বাড়ে, হৃদরোগ প্রতিরোধ হয়, শরীরের ওজন নিয়ন্ত্রণ থাকে, মূত্রতন্ত্রের কার্যকারিতা অক্ষুণ্ন থাকে। যেমন­ রসুন, পাসলি (খাদ্যে ব্যবহৃত সুগন্ধিযুক্ত পাতা) কিংবা ক্র্যানবেরি আপনার শরীরে প্রয়োজনীয় এমন কিছু পুষ্টি উপাদানের জোগান দেয় যা শরীরের চালিকাশক্তি হিসেবে কাজ করে।
ইদানীং বেশ ফলাও করে হাঁটার সুফলের কথা বলা হয়। কিন্তু যে বিষয়টা সর্বাপেক্ষা গুরুত্বপূর্ণ যা প্রায়ই অনুল্লেখ থাকে- তা হলো ব্যক্তি প্রতি কার্যকরী হাঁটার পরিমাণ নির্ধারণ, যদিও বর্তমানে আঙ্গুলের ভেনের মাধ্যমে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী নবউদ্ভাবিত জিম মেশিন ব্যবহারকারীর স্বাস্থ্যের উপযোগী ব্যায়াম করতে সহায়তা করবে, তবে তা সহজলভ্য নয় এবং শতভাগ কার্যকরী কিনা তার কোনো নিশ্চয়তা নেই। তাই ব্যক্তির নিজেকেই বুঝে কার্যকরী হাঁটার পরিমাণ নির্ধারণ করতে হবে, হাঁটা কখন শেষ করতে হবে তা জানতে হবে। বেশি ক্লান্ত হওয়া উচিত নয়। মাঝারি থেকে বেশি কষ্ট অনুভূত হলে হাঁটা বন্ধ করা উচিত।
(Page 3 of 5)   « Prev  1  2  
3
  4  5  Next »

Categories