স্বাস্থ্যকথা

দাঁত ও মাড়ি

সমস্যাঃ আমার বয়স ২৪ বছর। ওজন ৬০ কেজি। আমার দাঁতের মাঢ়িগুলো একটু ফোলা ফোলা হয়ে আছে। মনে হয়, যেন মাঢ়ি আলগা হয়ে যাচ্ছে। কোনো শক্ত খাবার খেতে গেলে মনে হয়, এই বুঝি দাঁত ভেঙে গেল। আমার মাঢ়ির বেশ কয়েকটি দাঁতে ডেন্টাল ক্যারিজ রয়েছে। দুই বেলা নিয়মিত দাঁত ব্রাশ করার পরও মুখে দুর্গন্ধ হয়, যা ভীষণ বিব্রতকর। এ ছাড়া দাঁতের হলদেটে ভাবও রয়েছে।
দাঁত আমাদের শরীরের খুবই গুরুত্বপুর্ণ অংশ, যা খুবই শক্ত ও মজবুত। শক্ত ও কঠিন হওয়া সত্ত্বেও আকস্মিক আঘাতে দাঁতের বিভিন্ন ক্ষতি হতে পারে। যেমন-হঠাৎ আঘাত পেয়ে দাঁত ভেঙে যেতে পারে, দাঁত টুকরো হয়ে যেতে পারে কিংবা দাঁতের গায়ে দেখা দিতে পারে ফাটল বা চিড়।
ক’দিন যাবৎ লাবনী কলেজে যাচ্ছে না। তার বান্ধবীরা বাসায় ফোন করে জানতে পারল তার দাঁত ব্যাথা হচ্ছে এবং মুখ ফুলে গিয়ে খাওয়া-দাওয়া প্রায় বন্ধ হয়ে গেছে। মুখ খুলতে পারছে না।
(ডা· সুলতানা গুলনাহার) উঁচু-নিচু বা আঁকাবাঁকা দাঁত ও মাঢ়ির চিকিৎসা আছে| একটি হচ্ছে, দাঁতের অর্থোডোন্টিক চিকিৎসা, আরেকটি হলো দাঁতে ক্যাপ বা সিরামিকের মুকুট পরানো| অর্থোডোন্টিক চিকিৎসা কিছুটা ব্যয়বহুল ও সময়সাপেক্ষ| আপনার ক্ষেত্রে কোন চিকিৎসাটি বেশি প্রযোজ্য তা না দেখে বলা সম্ভব হচ্ছে না|
(ডা· সুলতানা গুলনাহার) মাঢ়ি দিয়ে রক্ত পড়ার অনেক কারণ আছে। তার মধ্যে প্রধান হলো মাঢ়িতে প্রদাহ হওয়া। প্রদাহের কারণে রক্তক্ষরণ হলে ডেন্টাল সার্জনকে দেখিয়ে স্কেলিং করিয়ে নিন। প্রয়োজনে অ্যান্টিবায়োটিক সেবনও করতে হতে পারে।

Categories